পড়াশোনায় মনোযোগী হওয়ার উপায়

5/5 - (1 vote)

কিভাবে পড়াশোনায় মনোযোগী হওয়া যায় এই সমস্যায় বেশিরভাগ ছাত্র-ছাত্রীরাই ভোগেন। যখনি পরিক্ষা সামনে আসে তখনি তাদের হুশ হয় পড়াশোনা ভালো করে করতে হবে। সময়ের কাজ সময়ে করতে না জানলে প্রয়োজনের সময় হায়হুতাশ অনুভব করবেন সেটাই স্বাভাবিক।

ক্লাসের ফাস্ট বয়টাও যেয়ে দেখেন টেবিলের মধ্যে মুখ ধুবরে বসে পড়ছে। তার কি ইচ্ছে করে না বন্ধুদের সাথে আড্ডা দিতে! তারও ইচ্ছে করে কিন্তু সে দেয়না কারন তার লক্ষ্য নিশ্চিত। আর আপনি কি করছেন? হয়তো ফেইসবুকিং করছেন, ভিডিও দেখছেন ইত্যাদি ইত্যাদি কাজ গুলো করছেন যা আপনার মনোযোগ নষ্ট করছে। কাজেই এমন ধরনের অহেতুক কাজ করা থেকে বিরত থাকুন।

পরিক্ষার আগের রাতে কতোটাই না মনোযোগ দিয়ে পড়াশুনা করেন তাহলে অন্য সময় কেন আপনাকে মনোযোগি হতে হবে বলুন তো?

যখন পরিক্ষার সময় আসে তখন আপনার মাইন্ডসেট এমনভাবে তৈরি হয়ে যায় যে আপনাকে পড়তে বাধ্য করে। আপনি পড়তে বাধ্য হন। কারন তখন আপনার লক্ষ্য স্থির। আপনি আপনার ঘুমন্ত মস্তিষ্ককে এতোটাই বারবার এলাট পাঠান যে আপনার মন আপনাকে পড়তে বাধ্য করে।

পড়ায় মন বসে না কেন এর আসল কারন হলো আপনি অলশ প্রকৃতির এবং আপনার লক্ষ্য নির্ধারন করাতে ব্যর্থ।

কিভাবে পড়াশোনায় মনোযোগী হয়ে উঠবেন?

পড়াশোনায় মনোযোগী হয়ে ওঠার জন্য নির্দিষ্ট সময় নির্ধারণ করা। কখন কোন বিষয়ে নিয়ে পড়াশোনা করবেন সে বিষয়গুলো সময় সাপেক্ষে সাজিয়ে নেওয়া। এছাড়াও পড়ায় মনোযোগ ধরে রাখার জন্য দীর্ঘ সময় নির্ধারণ না করে সময়কে ছোট ছোট করে ভাগ করে নেওয়া। ১৫ থেকে ২০ মিনিট পর্যন্ত পড়ার পর নিজেকে পাঁচ মিনিটের জন্য বিরতি দিন। আর এই পাঁচ মিনিট ফোন হাতে নেওয়া থেকে বিরত থাকতে হবে। নয়তো পাঁচ মিনিটের জায়গায় পাঁচ ঘন্টা কাটিয়ে দিবেন বুঝতেই পারবেন না।

পড়তে বসে নিজের মনকে এলার্ট দিন। নিজেকে বলুন আপনি এই বইটির এই প্যারাটি শেষ করবেন তবে পড়া থেকে উঠবেন অথবা এই আজ সমাধানটি শেষ করে না ফেলা অব্দি টেবিল থেকে উঠছেন না। নিজেকে এলার্ট করার মাধ্যমে পড়াশোনাতে মনোযোগী হয়ে উঠার একটা অন্যতম মাধ্যম।

খুব সকালে ঘুম থেকে ওঠার অভ্যাস গড়ে তুলুন। সকালে মস্তিষ্ক এবং পরিবেশ শীতল থাকে যা আপনার পড়ায় মনোযোগী হতে ও পড়া মনে রাখতে সাহায্য করবে।

Leave a Comment