বায়োডাটা ও সিভির মধ্যে পার্থক্য কি?

5/5 - (2 votes)

বায়োডাটা ও সিভির মধ্যে পার্থক্য থাকলেও দুটিই চাকরির ক্ষেত্রে অনেক গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। একটি সুন্দর পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন গোছালো বায়োডাটা এবং সিভি আপনাকে ইনভাইটেশন পেতে সাহায্য করবে। চাকরিকর্তা চাকরি প্রার্থীদের কাছে থেকে চাকরি ভেদে একেক জন একেক রকমের ডকুমেন্ট চেয়ে থাকে। অনেকেই এই দুইয়ের মধ্যে সবকিছু গুলিয়ে ফেলে। চাকরির জন্য কোন ডকুমেন্টটি জমা দিতে হবে, বায়োডাটা নাকি সিভি।

এছাড়াও পড়ুন: বাংলায় ও ইংরেজিতে বায়োডাটা লেখার নিয়ম

আজকের এই আর্টিকেলের মাধ্যমে আপনি Biodata ও CV মধ্যে পার্থক্য গুলো কি কি সে সম্পর্কে একটি বিস্তারিত ধারণা পেতে যাচ্ছেন।

বায়োডাটা কি?

বায়োডাটা এমন একটি নথি যেখানে আপনার ব্যক্তিগত তথ্য সংযুক্ত থাকে। যেমন: আপনার নাম, পিতা-মাতার নাম, আপনার জন্মসাল, জেন্ডার, ধর্ম, উচ্চতা, রক্তের গ্রুপ, শিক্ষাগত যোগ্যতা, ঠিকানা, ফোন নাম্বার, বৈবাহিক সম্পর্ক, জাতীয়তা ইত্যাদি নিজের ব্যক্তিগত তথ্যের সমষ্টিকে বায়োডাটা বলা হয়। এই নথিকে আবার বাংলায় জীবন বৃত্তান্ত বলা হয়। যা একটি পৃষ্ঠার মধ্যে সকল তথ্য সংরক্ষিত রাখতে হয়।

সিভি কি?

সিভি একটি বিস্তারিত তধ্যযুক্ত নথি যা একাধিক পৃষ্ঠারও হতে পারে। সিভি সাধারণত একাডেমিক পদে চাকরির আবেদনের সাথে পাঠানো হয়। এই CV এর মধ্যে বায়োডাটার সকল প্রকার তথ্যের পাশাপাশি গবেষণা প্রকাশনা, সম্মাননা এবং অন্যান্য অর্জনগুলির মতো তথ্যও অন্তর্ভুক্ত থাকে। সামগ্রিকভাবে, বায়োডাটা সিভির চেয়ে সংক্ষিপ্ত হয়।

উপসংহার

উপরোক্ত বিষয়ে সম্পর্কে বুঝতে সমস্যা হলে উপরে থাকা ভিডিওটি দেখে নিতে পারেন যার মাধ্যমে আপনি জানতে পারবেন বায়োডাটা এবং সিভির মধ্যে পার্থক্য। এছাড়াও আপনি সকল ধরনের চাকরির খবর পেতে আমাদের ওয়েবসাইটের সাথে আপডেট থাকুন।

Leave a Comment