বেসরকারি চাকরির প্রত্যয়ন পত্র লেখার নিয়ম ও ফরমেট

Rate this post

বেসরকারি চাকরির ক্ষেত্রে প্রত্যয়ন পত্র অনেক বেশি গুরুত্বপূর্ন। অধিকাংশ চাকরি প্রতিষ্ঠান চাকরিপ্রার্থী ব্যক্তির কাছে থেকে পূর্বে কোথাও চাকরি করে থাকলে সেই পূর্বের প্রতিষ্ঠান থেকে প্যত্যয়ন পত্র চেয়ে থাকেন। এছাড়াও আপনি যখন ই-পাসপোর্ট করবেন কিছুকিছু পেশার ক্ষেত্রে আপনাকে প্রত্যয়নপত্র জমা দিতে হতে পারে পাসপোর্ট অফিসে।

নিচে থাকা এই প্রত্যয়নপত্র আপনি যেকোনো জায়গায় ব্যবহার করতে পারবেন আপনার প্রয়োজন অনুশারে।

প্রত্যয়ন পত্র লেখার নিয়ম ও ফরমেট

 

শাহ্-আরাফ আর্কিটেক এন্ড কনসালটেন্সি
পৌর বাজার রোড, রংপুর।
ইমেইলঃ  ফোনঃ

“ প্রত্যয়নপত্র ”

এই মর্মে প্রত্যয়ন করা যাইতেছে যে, জনাব মোঃ রেজাউল করিম, পিতাঃ মোঃ নজিম উদ্দিন, মাতাঃ জমিলা বেগম, গ্র্রামঃ আপনপাড়া, ডাকঘরঃ রংপুর, জেলাঃ রংপুর। তিনি আমার পরিচালনাধীন “শাহ্-আরাফ আর্কিটেক এন্ড কনসালটেন্সি” -এ ১০/১১/২০২২ ইং তারিখ হইতে “অফিস সহকারী” হিসাবে দায়িত্ব পালন করিয়া আসিতাছেন। আমার জানামতে তিনি সৎ, কর্মঠ, উত্তম ও নৈতিক চরিত্রের অধিকারী এবং শৃঙ্খলা বিরোধী কোনো ধরণের অসামাজিক কাজে জড়িত নয়।

আমি তাহার জীবনের উন্নতি ও সাফল্য কামনা করি।

 

(মোঃ ফারুক আহমেদ)
পরিচালক
শাহ্-আরাফ আর্কিটেক এন্ড কনসালটেন্সি
পৌর বাজার রোড, রংপুর।

 

নোটঃ আপনার উর্ধ কর্মকর্তার নিকট অর্থাৎ যার কাছে থেকে সাক্ষর নিতে চান তার নাম লিখতে হবে। আপনি যদি চাকরিটা ছেড়ে দেন তাহলে “শাহ্-আরাফ আর্কিটেক এন্ড কনসালটেন্সি” -এ ১০/১১/২০২২ ইং তারিখ হইতে ০৫/১০/২০২৩ ইং তারিখ পর্যন্ত “অফিস সহকারী” হিসাবে দায়িত্ব পালন করিয়াছেন ” এভাবে লিখতে হবে।

উপসংহার

এই ফরমেটটি আপনি আপনার প্রয়োজনে একটু ইডিট করে নিজের ব্যবহার করতে পারবেন। এছাড়াও সকল বেসরকারি, সরকারি চাকরির খবর পতে আমাদের সাথে ফেসবুক পেজে যুক্ত থাকুন।

Leave a Comment